1. info@dailyjanatarbarta.com : Admin :
  2. admin2@dailyjanatarbarta.com : Editor Janatar Barta : Editor Janatar Barta
  3. araf@yopmail.com : araf :
  4. editor@dailyjanatarbarta.com : JanatarBarta Editor : JanatarBarta Editor
  5. test@yopmail.com : test :
সংবাদ শিরোনাম :
ভোলার মেঘনায় মালবাহী কার্গোতে ডাকাতি! দূই জলদস্যুকে ধরে ফেললো কোস্ট গার্ড প্রকাশিত কাল্পনিক সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ জানালেন বিজেপি নেতা জামালউদ্দিন চকেট সিপিডিএ ‘র দ্বিতীয় বর্ষপূর্তিতে ক্যারিয়ার উন্নয়ন সপ্তাহ ১৫-২১ অক্টোবর সারাদেশে টিসিবির পণ্য বিক্রি শুরু ৬ মাস ২১ দিন পর দলীয় কার্যালয়ে রিজভী কোনো নির্বাচন নির্বাচন খেলা হবে না: ওবায়দুল কাদের সারাদেশে টিসিবির পণ্য বিক্রি শুরু মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনে মাঠ প্রশাসন মূল চালিকাশক্তি: প্রধানমন্ত্রী ভোলার মেঘনায় ৮ টি মালবাহী কার্গো জাহাজে ডাকাতির অভিযোগ! পুলিশের রহস্যময় ভূমিকা সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্কসংকেত

লালমোহনে অসুস্থ ১২ শিশু বাসায় ফিরলো।। মিষ্টি বিক্রেতার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ

  • পোস্টের সময়কাল : শনিবার, ১৭ জুলাই, ২০২১
  • ৬৮ মোট ভিউস্

লালমোহন প্রতিনিধিঃ

লালমোহনে মিষ্টি খেয়ে ১২ শিশু অসুস্থ হয়ে পড়েছে। ১৬ জুলাই সন্ধ্যায় ফরাজগঞ্জ ইউনিয়নের আনিচল মিয়ার হাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, আনিচল মিয়ার হাট এলাকারমনপুরা বাড়ির সুজন নামে এক ব্যক্তি একটি নতুন অটোরিকশা কিনে। এ উপলক্ষ্যে সে বাড়ির ও স্থানীয় লোকজনকে মিষ্টিমুখ করায়। ওই মিষ্টি খেয়ে জুনায়েদ (২), ফারিয়া (২), ফাহিমা (৬), আব্দুল্লাহ (৩), জুনিয়া (২), হোসাইন (৫), শারুপ (৯), সিফাতুল্লাহ (৮), তামিম (৯), তানহা (৩), আচিয়া (১১) ও সোলাইমান (৩) নামে এ ১২শিশু অসুস্থ হয়ে পড়ে। তাদেরকে লালমোহন হাসপাতালে এনে ভর্তি করা হয়।

মিষ্টি কোন দোকান থেকে কেনা হয়েছে তা নিয়ে কথা উঠে।বিষয়টি জানার জন্য সুজনকে পাওয়া যায়নি।ঔ এলাকার কিছু লোক ও কিছু রোগীর লোকজন রিয়াজের দোকানের মিষ্টি বলে জানিয়েছেন।এবিষয়ে কথা বললে রিয়াজ জানান,আমি দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় মিষ্টির দোকান চালিয়ে আসছি। এরকম সমস্যা কখনো হয়নি।আমার দোকানের মিষ্টি খেয়ে কেউ কখনো অসুস্থ হয়ে পড়েনি।সুজন কার দোকান থেকে মিষ্টি কিনেছে তা আমি জানিনা। তবে পাশের একটি মসজিদে মিলাদ হয়েছিল।তারা আমার দোকান থেকে মিষ্টি নিয়েছে।তা ছাড়া বিয়ে বাড়িতে আমার দোকান থেকে মিষ্টি গিয়েছে।

এসব স্থানে মিষ্টি খেয়ে কেউ অসুস্থ হয়ে পড়েনি। আমার বিরুদ্ধে একটি মহল ষড়যন্ত্র করতেছে।আমার পারিবারিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বিভিন্ন জনের সাথে শত্রুতা আছে।আমাকে ফাঁসানোর জন্য চক্রান্ত করে মিষ্টি খেয়ে বাচ্চারা অসুস্থ হয়ে পরার ঘটনাকে আমার ওপর চালিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করতেছে।আমার ব্যবসায়ীক সুনাম ক্ষুন্ন কারার চেষ্টা করছে।এদিকে লালমোহন হাসপাতালের আর এম ও ডাঃ মহসিন খাঁন জানান আমি বাচ্চা গুলো রাতেও দেখেছি সকালেও দেখেছি। তারা এখন সকলে সুস্থ।তাই তাদেরকে হাসপাতাল থেকে নাম কেটে বাড়িতে পাঠিয়ে দিয়েছি। এঘটনায় লালমোহন থানার অফিসার ইনচার্জ জানান খবর পেয়ে পুলিশের একটি টিম হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তদন্তের পর জানাযাবে।

শেয়ার করুন....

আরো দেখুন