1. info@dailyjanatarbarta.com : Admin :
  2. admin2@dailyjanatarbarta.com : Editor Janatar Barta : Editor Janatar Barta
  3. araf@yopmail.com : araf :
  4. editor@dailyjanatarbarta.com : JanatarBarta Editor : JanatarBarta Editor
  5. test@yopmail.com : test :
সংবাদ শিরোনাম :
ভোলার মেঘনায় মালবাহী কার্গোতে ডাকাতি! দূই জলদস্যুকে ধরে ফেললো কোস্ট গার্ড প্রকাশিত কাল্পনিক সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ জানালেন বিজেপি নেতা জামালউদ্দিন চকেট সিপিডিএ ‘র দ্বিতীয় বর্ষপূর্তিতে ক্যারিয়ার উন্নয়ন সপ্তাহ ১৫-২১ অক্টোবর সারাদেশে টিসিবির পণ্য বিক্রি শুরু ৬ মাস ২১ দিন পর দলীয় কার্যালয়ে রিজভী কোনো নির্বাচন নির্বাচন খেলা হবে না: ওবায়দুল কাদের সারাদেশে টিসিবির পণ্য বিক্রি শুরু মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনে মাঠ প্রশাসন মূল চালিকাশক্তি: প্রধানমন্ত্রী ভোলার মেঘনায় ৮ টি মালবাহী কার্গো জাহাজে ডাকাতির অভিযোগ! পুলিশের রহস্যময় ভূমিকা সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্কসংকেত

জঙ্গিদের সক্ষমতা বৃদ্ধি পেলেও ঈদে কিছু ঘটবে না: ডিএমপি

  • পোস্টের সময়কাল : মঙ্গলবার, ২০ জুলাই, ২০২১
  • ৮৪ মোট ভিউস্

অনলাইন ডেস্কঃ

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম বলেছেন, বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বে জঙ্গিদের তৎপরতা এখন অনলাইনকেন্দ্রিক। জঙ্গি তৎপরতায় যুক্ত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তার করে বিচারের মুখোমুখি করা হচ্ছে। জঙ্গিদের তৎপরতার ওপর পুলিশের কঠোর নজরদারি রয়েছে। দেশে জঙ্গি হামলার কোনো আশঙ্কা নেই। জঙ্গিদের সক্ষমতা বাড়লেও ঈদে কিছু ঘটবে না।

মঙ্গলবার (২০ জুলাই) দুপুরে ঈদুল আজহায় রাজধানীর নিরাপত্তা ব্যবস্থাপনা নিয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান তিনি।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, ‘সম্প্রতি যেসব বোমা আমরা উদ্ধার করেছি সেগুলো অত্যন্ত শক্তিশালী। এগুলো বিস্ফোরণ ঘটলে ভয়াবহ হতে পারে। যে কারণে আমরা মনে করছি জঙ্গিদের প্রস্তুতি আছে। তবে আমরাও থেমে নেই। এই বিষয়ে আমাদের যারা কাজ করছে তারা খুবই এক্সপার্ট। তাই আমরা মনে করছি না ঈদে কিছু ঘটবে।’

তিনি বলেন, ‘সম্প্রতি তাদের (জঙ্গিদের) সক্ষমতা বেড়েছে। তাদের বোমা বানানোর যে ক্যাপাবিলিটি সেটাও বেড়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি কমিশনার হওয়ার আগে রাজধানীর পাঁচটি চেকপোস্টে জঙ্গি বোমা হামলার ঘটনা ঘটেছিল। সেসব বোমা কিন্তু বেশি শক্তিশালী ছিল না। একেবারেই অল্প কাজ জানা লোকের হাতে তৈরি হয়েছিল। কম শক্তিশালী হওয়ায় পুলিশ সদস্যরা আহতও হয়নি। তবে সম্প্রতি যেসব বোমা আমরা উদ্ধার করেছি সেগুলো অত্যন্ত শক্তিশালী। তারা নিয়োজিতদের প্রশিক্ষিত করে বোমা বানানোর কাজে নিয়োগ করতে পেরেছে। তবে কোনো ঘটনা ঘটনার আগেই আমরা খবর পাচ্ছি। ডিএমপির সিটিটিসির পাশাপাশি কাজ করছে এটিইউ, র্যাবের এন্টি টেরোরিজম ইউনিট। ফলে যেখানেই যতোটুকু তথ্য আমরা পাচ্ছি সেখানেই কাজ করছি।’

ঢাকার বাইরে কোনো জঙ্গি আস্তানা হলেই অভিযানে যাচ্ছে ডিএমপির সিটিটিসি। তবে অন্য ইউনিটগুলোর সক্ষমতা কী কম, নাকি জঙ্গিদের টার্গেটই ঢাকা? জানতে চাইলে ডিএমপি কমিশনার বলেন, ‘এই জঙ্গি নেটওয়ার্কে ঢুকছে কারা? সেটা একমাত্র তারাই জানেন যারা এই জঙ্গি নেটওয়ার্কের তথ্য ভাণ্ডারে ঢুকে কাজ করছেন। যেটা ডিসক্লোজ করা ঠিক হবে না।’

জঙ্গি তৎপরতা বৃদ্ধির কারণ সম্পর্কে জানতে চাইলে কমিশনার বলেন, ‘এই কোভিড পরিস্থিতির মধ্যে বাইরে যাওয়ার সুযোগ কম, বিনোদনের সুযোগ কম। এই সময়ে অনেকেই ইন্টারনেটে বসে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরছে, তথ্য-উপাত্ত দেখছে। এক সময় তারা জঙ্গিবাদী ট্র্যাপে পড়ে যাচ্ছে। এক্ষেত্রে আমাদের নজরদারিও কম নয়। নইলে বড় ঘটনা ঘটে যেতে পারত। কিন্তু তা ঘটেনি। সম্প্রতি ভারতে তিনজন বড়মাপের জঙ্গি গ্রেফতার হয়েছে। তাদের সম্পর্কে আমাদের কাছে তথ্য ছিল। এ ধরনের তথ্য কিন্তু আমরা পরস্পর আদান-প্রদান করে থাকি। এই তিনজন ছেলে জিহাদের জন্য বাংলাদেশ ত্যাগ করেছে। এই তথ্যটা আমরা জানতাম যেটা আমরা যথাযথ সময়েই ভারতকে জানিয়েছি।’

এ সময় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন-ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার মীর রেজাউল আলম, কৃঞ্চপদ রায়, এ কে এম হাফিজ আক্তার, মুনিবুর রহমান, মফিজ উদ্দিন, সিটিটিসি প্রধান মো. আসাদুজ্জামানসহ অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।

শেয়ার করুন....

আরো দেখুন