1. info@dailyjanatarbarta.com : Admin :
  2. admin2@dailyjanatarbarta.com : Editor Janatar Barta : Editor Janatar Barta
  3. araf@yopmail.com : araf :
  4. editor@dailyjanatarbarta.com : JanatarBarta Editor : JanatarBarta Editor
  5. test@yopmail.com : test :
সংবাদ শিরোনাম :
ভোলার মেঘনায় মালবাহী কার্গোতে ডাকাতি! দূই জলদস্যুকে ধরে ফেললো কোস্ট গার্ড প্রকাশিত কাল্পনিক সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ জানালেন বিজেপি নেতা জামালউদ্দিন চকেট সিপিডিএ ‘র দ্বিতীয় বর্ষপূর্তিতে ক্যারিয়ার উন্নয়ন সপ্তাহ ১৫-২১ অক্টোবর সারাদেশে টিসিবির পণ্য বিক্রি শুরু ৬ মাস ২১ দিন পর দলীয় কার্যালয়ে রিজভী কোনো নির্বাচন নির্বাচন খেলা হবে না: ওবায়দুল কাদের সারাদেশে টিসিবির পণ্য বিক্রি শুরু মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনে মাঠ প্রশাসন মূল চালিকাশক্তি: প্রধানমন্ত্রী ভোলার মেঘনায় ৮ টি মালবাহী কার্গো জাহাজে ডাকাতির অভিযোগ! পুলিশের রহস্যময় ভূমিকা সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্কসংকেত

জীবনের নিরাপত্তা চান বরগুনার রামনা ইউনিয়নের নব নির্বাচিত আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান

  • পোস্টের সময়কাল : মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই, ২০২১
  • ৭০ মোট ভিউস্

 

মোঃ খাইরুল ইসলাম মুন্না
বরগুনা প্রতিনিধি

বরগুনা জেলার বামনা উপজেলার রামনা ইউনিয়নের নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম জোমাদ্দার প্রশাসনের নিকট জীবনের নিরাপত্তা চেয়েছেন।

প্রতিপক্ষের মামলার প্রতিবাদে মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলন করে তিনি এ নিরাপত্তা চেয়েছেন।

বরগুনা সাংবাদিক ইউনিয়নের সম্মেলন কক্ষে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, ইউপি সদস্য নাজমুল হক মধু, হিন্দু বৌদ্ধ ঐক্য পরিষদের বামনা শাখার সদস্য সিমা দাস, আওয়ামী লীগ নেতা ইউসুফ আলী হাওলাদার, যুবলীগ নেতা রিপন সিকদারসহ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

সংবাদ সম্মেলনে চেয়ারম্যান আলহাজ নজরুল ইসলাম জোমাদ্দার লিখিত বক্তব্যে বলেন, ২১ জুন নির্বাচনে আমার প্রতিপক্ষ সাবেক চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আবদুল খালেক জোমাদ্দার বিপুল ভোটে আমার কাছে পরাজিহ হন। এরপর থেকে তার ছোট ভাই বারেক জোমাদ্দার, তার তিন ছেলে কমল, পপিন, উজ্জল সন্ত্রাসী অসিম, সোহাগ, নাঈম ও জুয়েল আমার নেতাকর্মীদের ওপর অত্যাচার করে আসছে। আমার কর্মী ফরিদ ও ফোরকানকে বেধড়ক মারধর করেছে আমার সামনে।

তিনি বলেন, আমি আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে জয় লাভ করার পরও আতঙ্গে আছি। আমার প্রতিপক্ষ যে কোনো সময় আমাকে খুন করতে পারে। আমার রামনা ইউনিয়নে সংখ্যালঘুদের ওপর নির্যাতন করে ওই সন্ত্রাসীরা।

তিনি আরো বলেন, পরাজিত প্রার্থী আবদুল খালেক জোমাদ্দার আমার আপন চাচাত ভাই। একই বাড়ি আমাদের। কিন্তু তার ছোট ভাই আবদুল বারেক জোমাদ্দার ও তার ছেলেদের অত্যাচারে আমি বাড়িতে যেতে পারি না। নির্বাচিত হবার পরে আমি এখানে সেখানে থাকি। আমি বামনা উপজেলা প্রশাসনের কাছে বলার পরও ওই সন্ত্রাসীরা তাদের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে। আমি সরকারের নিকট জীবনের নিরাপত্তা চাই।

সন্ত্রাসী অসিম ২৬ জুলাই আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা সংবাদ সম্মেলন করে বলেছেন, আমাদের কর্মীরা তাকে মারধর করেছে।

সিমা দাস বলেন, আমরা হিন্দু সম্প্রদায়। আমরা নৌকায় ভোট দেয়ার কারণে পরাজিত প্রার্থীর লোকজন আমাদের ওপর অত্যাচার করে যাচ্ছে। আমরা সরকারের নিকট অত্যাচারের বিচার চাই।

এ ব্যাপারে আবদুল বারেক জোমাদ্দার সাংবাদিকদের বলেন, আমার বড় ভাই অ্যাডভোকেট আবদুল খালেক জোমাদ্দার রামনা ইউনিয়নে দু’বার চেয়ারম্যান, আমার বাবা হাতেম আলী জোমাদ্দারও চেয়ারম্যান ছিলেন। নির্বাচনের পর আমার বড় ভাই তার স্ত্রীর চিকিৎসার জন্য ঢাকায় রয়েছেন। নজরুল জোমাদ্দার সরকারি দলের নৌকা পেয়ে ভোট কেটে চেয়ারম্যান হয়ে আমাদের কর্মী অসীমকে মারধরসহ অনেক কর্মীদের গ্রাম ছাড়া করেছেন। এখন উল্টো আমার ও আমার ছেলেদের ওপর মিথ্যা অভিযোগ দিচ্ছেন।

শেয়ার করুন....

আরো দেখুন