1. info@dailyjanatarbarta.com : Admin :
  2. admin2@dailyjanatarbarta.com : Editor Janatar Barta : Editor Janatar Barta
  3. araf@yopmail.com : araf :
  4. editor@dailyjanatarbarta.com : JanatarBarta Editor : JanatarBarta Editor
  5. test@yopmail.com : test :
সংবাদ শিরোনাম :

জলদস্যু ডাকাতের আড্ডাখানা দৌলতখানের মেঘনা, জেলে পল্লীতে বোবা কান্না

  • পোস্টের সময়কাল : রবিবার, ১ আগস্ট, ২০২১
  • ৯৭ মোট ভিউস্

দৌলতখান প্রতিনিধিঃ

দেশের উপকূলীয় অঞ্চলের নদীগুলোর মধ্যে মেঘনা অন্যতম। দ্বীপ জেলা ভোলার দৌলতখানের প্রধান আয়ের উৎস মেঘনা নদী। এই নদীতে জীবিকার তাগিদে হাজার হাজার জেলে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নদীতে মাছ শিকারে ছুটে যান। নদীতে নেই কোন জেলেদের জীবনের উন্নত নিরাপত্তার ব্যবস্থা। তাই প্রতিনিয়ত জেলেরা নদীতে মাছ ধরতে গেলে জলদস্যুদের হামলার শিকার হন এবং মুক্তিপণ দিয়ে ফেরত আসেন । বর্তমানের নদীতে জলদস্যুদের ভয়ে দৌলতখানের হাজার হাজার জেলে অসহায় জীবনযাপন করছেন।’

গত এক মাসে মেঘনা নদীতে অন্তত অর্ধশত মাছ ধরা নৌকায় ডাকাতি হয়েছে। জলদস্যুরা এসব নৌকার জেলেদের জিম্মি করে মুক্তিপণ আদায় করে নিচ্ছে। নৌকার মালিকরা জলদস্যুদের দেয়া বিকাশ নাম্বারে টাকা দিলেই মুক্তি পায় জিম্মি হওয়া জেলেরা। বাধ্য হয়েই টাকা দিয়ে জেলে ও নৌকা ছাড়িয়ে আনা হয়।

জলদস্যুদের হামলার শিকার দৌলতখান উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নের জেলে সাইফুল মাঝি ও জেলে আলমগীর জানান , ‘এবার যদিও নদীতে মৌসুমের শুরুতে কাঙ্খিত মাছের দেখা পাচ্ছেনা তারা। তার উপর আমাদেরকে জলদস্যুরা আটকে রেখে হামলা করে মুক্তিপণ দাবি করেন । পরে তাদেরকে বিকাশের মাধ্যমে মুক্তিপণ পরিশোধ করে ফেরত আসতে হয়। এমন পরিস্থিতিতে দু’মুঠো ভাত খেয়ে বেচে থাকাই বড় দায় হয়ে পড়েছে। একদিকে নদীতে তেমন মাছ নেই । অন্যদিকে করোনার প্রভাব বিস্তার। বর্তমানে এমন পরিস্থিতে জেলেরা অসহায় হয়ে পড়েছে। ডাকাতের আতংকে নদীতে মাছ শিকারে যেতে পাড়ছেন না জেলেরা। ওরা ঘূর্ণিঝড় কিংবা প্রাকৃতিক বির্পযয়ে অবসর থাকতে হয়। এদিকে প্রশাসনের ভূমিকা নিয়েও উঠেছে নানা প্রশ্ন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক জেলে জানান, এর সাথে মির্জাকালু নৌ-পুলিশের সদস্যরা জড়িত থাকতে পাড়ে ।প্রশাসনের নজরদারির অভাবে মেঘনায় এমন ঘটনা প্রতিনিয়ত ঘটে। প্রশাসরের পক্ষ থেকে কঠোর নজরদারির দাবি জানান তিনি।’

এ বিষয় নৌ-পুলিশের হাকিমউদ্দিন ক্যাম্পের ইনচার্জ রুহুল আমিন জানান, মেঘনায় এমন ঘটনা আমরা জানতে পেড়েছি । জেলেদের পক্ষ থেকে অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

দৌলতখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বজলার রহমান জানান, ‘ইতোমধ্যে জেলেরা আমাকে বিষয়টি অবহিত করেছেন। খুব শিঘ্রই নদী থেকে জলদস্যু নির্মূলে বিশেষ অভিযান পরিচালানা করা হবে । জলদস্যুদের আটক করতে বিভিন্ন ভাবে তথ্য সংগ্রহ চলছে।’

শেয়ার করুন....

আরো দেখুন