ঝুঁলে থাকা ১৬১ ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) ও নয় পৌরসভায় নির্বাচন আগামী ২০ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। ৮৫তম কমিশন বৈঠক শেষে নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব মো. হুমায়ুন কবীর খোন্দকার বৃহস্পতিবার (২ সেপ্টেম্বর) নির্বাচন ভবনে এ ঘোষণা দেন। তিনি বলেন, প্রথম ধাপে ১৬৭টি ইউপির ভোট স্থগিত করা হয়েছিল। এর মধ্যে ১৬১ ইউপিতে আগামী ২০ সেপ্টেম্বর ভোটগ্রহণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন।
টেকনাফের পাঁচটি ইউপির চেয়ারম্যান প্রার্থী মারা গেছেন। এছাড়া কক্সবাজারের একটি ইউপিতে আপাতত ভোট বন্ধ রাখার জন্য আমাদের কাছে অনুরোধ এসেছে। এজন্য আপাতত ১৬১টি ইউপিতে ভোটগ্রহণ করা হবে। তিনি জানান, একই দিন স্থগিত থাকা নয়টি পৌরসভার ভোটগ্রহণ করা হবে।
ইউপিগুলোর মধ্যে বাগেরহাট জেলার সদর, শরণখোলা, মোরেলগঞ্জ, মোংলা, রামপাল, কচোয়া, চিতলমারী, মোল্লাহাট ও ফকিরহাট উপজেলার ৭০টি ইউপি, খুলনা জেলার কয়রা, দাকোপ, বটিয়াঘাটা, দিঘলিয়া ও পাইকগাছা উপজেলার ৩৫টি ইউপি, সাতক্ষীরা জেলার কলারোয়া ও তালা উপজেলার ২১টি ইউপি, নোয়াখালী জেলার সুবর্ণচর ও হাতিয়ার ১৩টি ইউপি, চট্টগ্রাম জেলার সন্দ্বীপের ১৩টি ইউপি এবং কক্সবাজার জেলার নয়টি ইউপি রয়েছে। আর পৌরসভাগুলো হলো- লাঙ্গলকোট, ভাঙ্গা, চকরিয়া, সোনাগজী, কবিরহাট, মহেশখালী, দেবীগঞ্জ, যশোর সদর পৌরসভা ও অভয়নগরের নোয়াপাড়া পৌরসভা।